কালো হাত পা ফর্সা করার ৯-টি ঘরোয়া উপায়।

হাত-পা-ফর্সা-করার-উপায়

বেশি ভাগ মানুষের শরীরের অন্য অংশের তুলনায় হাত পা একটু বেশি কালো হয়। মুখ, হাত ও পা এর রঙের ভিন্নতা প্রায় সবাইর দুশ্চিন্তার কারণ। আপনার সৌন্দর্য শুধু আপনার মুখের সৌন্দর্যে প্রকাশ পায় না। এর জন্য হাত ও পা এরও বিশেষ ভুমিকা আছে। বিশেষ করে আমাদের হাত পা অনেক বেশি রোঁদের সংস্পর্শে আসে, তাই হাত পা অন্যান্য অংশের চেয়ে অনেক বেশি কালো হয়ে থাকে। কালো হাত পা অনেকটাই কষ্ট ও লজ্জার বেপার হয়ে দাঁড়ায় কখনো কখনো। ফর্সা মুখের ত্বকের সাথে সামঞ্জস্য করতে আপনার চাই ফর্সা হাত পা। তাই আজই জেনে নিন –

কালো হাত পা ফর্সা করার ৯-টি ঘরোয়া উপায়।

১. কাঁচা দুধঃ
ফর্সা হাত পা এর জন্য কাঁচা দুধ খুবই কার্যকরী। কাঁচা দুধে ল্যাকটিক এসিড আছে, যা ত্বকের ভিতর থেকে ফর্সা করতে সাহায্য করে। তাই কাঁচা দুধে তুলার বল ভিজিয়ে হাত ও পায়ে হালকা ভাবে ঘসে লাগিয়ে নিন। আপনি চাইলে হাত দিয়েও লাগাতে পারেন। শুখিয়ে গেলে এবার লাগিয়ে নিতে পারেন। না হয় একবার লাগিয়েই ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন কাঁচা দুধ হাত ও পায়ে লাগালে আপনি খুব কম সময়েই পাবেন ফরসা হাত পা।

২. কমলার খোসা ও কাঁচা দুধঃ
শুকনা কমলার খোসা ত্বকের জন্য খুবই উপকারি। বিশেষ করে এটি ত্বকের কালচে ভাব দূর করে ও ত্বকের ময়লা পরিস্কার করে। তাই কড়া রোঁদে কমলার খোসা রেখে তা ভালোভাবে শুকিয়ে নিন। শুখিয়ে গেলে তা ভালোভাবে পাউডার করে একটি পাত্রে সংরক্ষন করুন। তারপর ৪ টেবিল চামচ শুখনা কমলার খোসার গুঁড়ো নিয়ে তার সাথে দুধ মিশিয়ে খুব ভালোভাবে পেস্ট করে নিন। পেস্টটি হাতে ও পায়ে লাগিয়ে নিন এবং ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্কটি আপনার হাত ও পা থেকে ময়লা দূর করবে এবং আপনাকে দিবে ফর্সা হাত পা। সপ্তাহে ৩ দিন এই মাস্কটি ব্যাবহার করুন।

৩. টম্যাটোর রস, হলুদের গুঁড়া ও চন্দনের গুঁড়ারঃ
টম্যাটোর রসে আছে প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান। ত্বকের যত্নে হলুদের কোন তুলনা নেই। হলুদ ত্বক থেকে বয়সের দাগ, রোঁদে পোড়া দাগ ও ব্রনের দাগ দূর করে। চন্দনের গুঁড়া ত্বকের ভিতর থেকে ময়লা পরিস্কার করে ও ত্বককে ফর্সা করতে সাহায্য করে। ২ টেবিল চামচ টম্যাটোর রস, ১ চামচ হলুদের গুঁড়া ও ২ টেবিল চামচ চন্দনের গুঁড়ার সাথে গোলাপ জল মিশিয়ে ঘন পেস্ট করে নিন। পেস্টটি হাত পায়ে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ দিন এই মাস্কটি ব্যাবহার করে আপনি পেতে পারেন ফর্সা হাত ও পা।

৪. মধু ও দারুচিনির গুঁড়াঃ
মধু ত্বককে অনেক ফর্সা করতে সাহায্য করে। কালো হাত পা থেকে মুক্তি পেতে মধু বেশ সহায়ক। মধুর সাথে দারুচিনির গুঁড়া মিশিয়ে কালো হাত পা এর সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়। ২ চা চামচ দারুচিনির পেস্টের সাথে ২ টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে পেস্ট করে নিন। হাত ও পায়ে মাস্কটি লাগিয়ে নিন ২০ মিনিট এর জন্য। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্কটি সপ্তাহে দুই দিন ব্যাবহার করে আপনি পেতে পারেন ফর্সা হাত ও পা।

৫. এলোভেরা ও শসার রসঃ
এলোভেরার রস বহু গুনাগুন সম্পন্ন। এলোভেরার রস স্বাস্থ্য, ত্বক ও চুলের যত্নে বেশ উপকারি। এটি ত্বকের ভিতরের কোষ গুলোকে পরিষ্কার করে ও দাগ দূর করে। শসার রস কালো দাগ দূর করতে বেশ প্রচলিত। ১ টেবিল চামচ এলোভেরার রসের সাথে ৩ টেবিল চামচ শসার রস মিশিয়ে নিন। তারপর মিশ্রণটি হাতে ও পায়ে লাগিয়ে নিন। ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। আপনি চাইলে মাসাজ করতে পারেন। হাত পা এর কালো দাগ ও রোঁদে পোড়া দাগ করতে এটি বেশ উপযোগী। তাই সপ্তাহে ২ বার মিশ্রণটি হাত পায়ে লাগিয়ে পেয়ে যান ফর্সা হাত ও পা।

৬. আলু ও লেবু রসঃ
আলু ও লেবু ত্বকের পোড়া দাগ ও কালো দাগ দূর করতে বেশ সহায়ক। তাই আপনি আলু ও লেবুর রস (১ টেবিল চামচ) করে মিশিয়ে মিশ্রণ করে নিন। তারপর মিশ্রণ টি হাত ও পায়ে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট এর জন্য। তারপর পরিস্কার পানি দিয়ে খুব ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ৪ দিন করেই দেখুন আপনি কিভাবে কালো হাত পা থেকে মুক্তি পেয়ে ফর্সা হাত পা পাবেন।

৭. গোলাপ জল, অলিভ অয়েল ও গ্লিচারিনঃ
হাত পা ফর্শা করতে বাজার থেকে কিনছেন লোশন, ক্রিম ও ময়েসচারাইজার? কিন্তু হাত পা থেকে কালচে ভাব যাচ্ছে না! তাই ঘরে বসেই বানিয়ে নিন ময়েসচারাইজিং জেল। একটি খালি বোতলের অর্ধেকটা ভরে নিন গোলাপ জল দিয়ে। বাকি অর্ধেক অংশের অর্ধেকটা ভরে নিন অলিভ অয়েল ও বাকি অর্ধেকটা গ্লিচারিন দিয়ে। তারপর বোতলটি ঝাকিয়ে নিন। রাতে ও গোসলের পর এই জেল টি পায়ে ও হাতে লাগিয়ে নিন। প্রতিদিন এই ভাবে ২ বার লাগালে ধীরে ধীরে আপনার হাত পা ফর্সা, কোমল ও লাবণ্যময়ী হয়ে উঠবে। তাই ফর্সা হাত পা পেতে এই ঘরোয়া জেলটি ব্যাবহার করেন। ব্যাবহারের পূর্বে অবশ্যই বোতলটি ঝাকিয়ে নিবেন।

৮. পাকা পেঁপেঃ
কালো হাত পা থেকে মুক্তি পেতে পাকা পেঁপে বেশ উপকারী। পাকা পেঁপে রোঁদে পোড়া ভাব ও হাত পা এর কালচে দাগ দূর করে। তাই ফর্সা হাত পা পেতে পাকা পেঁপেকে ভালো ভাবে হাত দিয়ে চটকিয়ে নিন। তারপর হাত ও পায়ে ভালোভাবে ঘসে ঘসে লাগিয়ে রাখুন। ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এইভাবে সপ্তাহে ৩ দিন পাকা পেঁপে লাগাতে পারেন, যতদিন পর্যন্ত না আপনি ভালো ফলাফল পাচ্ছেন।

৯. বেসন, হলুদের গুঁড়া, কাঁচা দুধ বা গোলাপ জল ও লেবুর রসঃ
বেসন ত্বককে পরিস্কার করে ত্বকের লাবণ্যতা ফিরিয়ে আনে। বেসনের মাস্ক ব্যাবহার করে আপনি ফর্সা হাত পা পেতে পারেন। ফিরে পাবেন হারানো লাবণ্যতা। ২ টেবিল চামচ বেসন, হলুদের গুঁড়া ১ চা চামচ, ২ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ বা গোলাপ জল ও কয়েক ফোটা লেবুর রস মিশিয়ে ঘন পেস্ট করে নিন। তারপর হাত ও পায়ে লাগিয়ে নিন ১৫ মিনিটের জন্য তারপর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ বার ব্যাবহার করে হতে পারেন ফর্সা হাত পা এর অধিকারী।

হাত পায়ের যত্নে সবচেয়ে গুরুত্তপূর্ণ হল পরিষ্কার হাত পা। সব সময় হাত পা পরিষ্কার রাখুন। বাহির থেকে ফিরে মুখের সাথে সাথে হাত পা পরিস্কার করুন। এতে করে হাত পায়ে ময়লা জমবে না ও আপনি পাবেন ফর্সা হাত পা।

(Visited 512 times, 1 visits today)
Share :
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Be the First to Comment!

Notify of
avatar