সুস্বাদু মজাদার ৫ টি বিরিয়ানি রেসিপি একসাথে

মজাদার-বিরিয়ানি-রেসিপি

বিরিয়ানি খেতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। উৎসবে কিংবা অতিথি আপ্যায়নে বিরিয়ানি রান্না হয় প্রায় সব বাড়িতেই। এই বিরিয়ানিরও রয়েছে নানা ধরন। দেখে নিন ৫টি মজাদার বিরিয়ানির রেসিপি একসাথে।

১। কাচ্চি বিরিয়ানি রান্নার রেসিপি

উপকরণঃ
১। খাসির মাংস – ২ কেজি,
২। বাসমতি চাল – ১ কেজি,
৩। ঘি – দেড় কাপ,
৪। আলু ভাজা – ১/২ কেজি,
৫। পেয়াজ (বেরেস্তার জন্য) – ২৫০ গ্রাম,
৬। আদা বাটা – ২ টেবিল চামচ,
৭। রসুন বাটা – ২ চা চামচ,
৮। দারুচিনি গুঁড়ো – আদা চা চামচ,
৯। এলাচ গুঁড়ো – ৬টি,
১০। লকদ গুঁড়ো – ৪টি,
১১। জায়ফল গুঁড়ো – ১টি,
১২। জয়ত্রী গুঁড়ো – ১ চিমটি,
১৩। জিরা গুঁড়ো – ১ টেবিল চামচ,
১৪। শুকনো মরিচ গুঁড়ো – ৬টি,
১৫। টক দই – সোয়া কাপ,
১৬। আলু বোখারা – ৫টি,
১৭। লবণ – পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালীঃ
– মাংস ধুয়ে লবণ মেখে ৩০ মিনিট রেখে আবার ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। পেয়াজ ঘিয়ে ভেজে তুলে ঠাণ্ডা করে মোটা গুঁড়ো করে রাখুন। আদা রসুন বাটার রস, পেয়াজ, গুঁড়ো মসলা মাংসের সঙ্গে মিশিয়ে যে পাত্রে বিরিয়ানি রান্না করবেন সে পাত্রে রাখুন। এবার মাংসের সঙ্গে দই ভালোভাবে মেশান।

– আলু একটু ভেজে মাংসের ওপর ছড়িয়ে তার ওপর ঘি ও আলু বোখারা দিন। চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। একটি পাত্রে ৩ কাপ ফুটান লবণ পানিতে চাল সিদ্ধ করুন। চাল আধা সিদ্ধ হলে পানি একটি পাত্রে ঝরিয়ে রাখুন। চালের ফুটানো পানি থেকে ১ কাপ পানি ও বাকি ঘি মিশিয়ে মাংসে দিয়ে আধা ঘণ্টা ঢেকে রাখুন।

– মাংসের ওপর চাল ছড়িয়ে ফুটানো পানি দিন। পানি যেন চালের সমান হয়। চালের ওপরে যেন না ওঠে। ঢাকনা দিয়ে চুলায় মাঝারি আঁচে রাখুন। চাল সিদ্ধ হলে তাওয়ার পর পাত্র বসিয়ে দমে রাখুন।

* আর যদি বিরিয়ানি ওভেনে রান্না করতে চান তাহলে ওভেনে ১৮০ ডিগ্রী সেলসিয়াস এ তাপ দিন। গরম ওভেনে হাঁড়ি ৩ ঘণ্টা রেখে নামিয়ে নিন।
* আর যদি কাঠ কয়লার আগুনে বিরিয়ানি রান্না করতে চান তাহলে কাঠে আগুন দেয়ার পর যখন ৩\৪ অংশ আগুনে পুড়ে যাবে বড় কাঠ-কয়লা হবে,সে কয়লার আগুনে হাঁড়ি বসিয়ে দিন। হাঁড়ির উপরে এবং চারপাশেও কাঠ-কয়লার আগুন দিয়ে দিন। হাঁড়ির তলায় প্রথমে ১৫ মিনিট কাঠ পোড়াতে হবে এবং পরে আরও আড়াই ঘণ্টা কাঠ কয়লার আগুনে দমে রাখতে হবে ।


২। হায়দ্রাবাদী বিরিয়ানি রান্নার রেসিপি

উপকরণঃ
১। বাসমতী চাল – ৫০০ গ্রাম,
২। খাসির মাংস – ১ কেজি (লেগ পিস),
৩। ঘি – ১ টেবিল চামচ,
৪। জিরা – ১ চা চামচ,
৫। গরম মশলা গুড়া – ২ চা চামচ,
৬। রসুন আদা পেস্ট – ২ টেবিল চামচ,
৭। পেঁয়াজ বেরেস্তা – ২ কাপ,
৮। টক দই – ২ টেবিল চামচ,
৯। পুদিনা পাতার – ১ গুচ্ছ,
১০। দই – ২ কাপ,
১১। হিজলি বাদাম (ঐচ্ছিক) – ৫০ গ্রাম,
১২। হলুদ গুঁড়া – ১ চিম্টি,
১৩। জাফরান – ১ চিম্টি,
১৪। ধনে পাতা – ১ গুচ্ছ,
১৫। লবণ – পরিমাণ অনুযায়ী,
১৬। তেল – ৫ টেবিল চামচ,
১৭। কাশ্মীরি লাল মরিচ গুঁড়া – ১ টেবিল চামচ,
১৮। সাজানোর জন্য সেদ্ধ ডিম – ২টি (ঐচ্ছিক),
১৯। গোলাপ জল – ১ টেবিল চামচ (ঐচ্ছিক)।

প্রস্তুত প্রণালীঃ
– মাংস ধুয়ে পরিষ্কার করে একটি শুকনো পাত্রে গরম মশলা লবণ, আদা-রসুন বাটা, লাল মরিচ পেস্ট, এবং টকদই যোগ করে মেরিনেট করে একরাত ফ্রিজে রেখে দিন।

দিক নির্দেশনা:
– প্রথমেই পানি ফুটিয়ে ঘি, তেল, লবণ যোগ করুন এবং চাল অর্ধেক সিদ্ধ করুন। এবার তেল ও ঘি গরম করে তাতে পেঁয়াজ কিছুক্ষণ নেড়ে কাঁচালংকা দিন বাদামি হয়ে এলে মেরিনেট করা মাংস ঢেলে দিন এবং পেয়াজ বেরেস্তার ১/৩ অংশ যোগ করে পাশে সরিয়ে রাখুন।
– এবার একটি গভীর প্যানে নিচে মাংশ তার উপরে আধা সিদ্ধচাল তার উপরে আবারও মাংশ ও চাল দিয়ে উপরে বেরেস্তার বাকি অংশ পুদিনা পাতা কিশমিশ, বাদাম কুচি, এবং ধনে পাতা যোগ করুন। পৃথক একটি বাটিতে দুধ ও জাফরান এবং গোলাপ জল মিসিয়ে বিরিয়ানির প্যানের উপরে ঢেলে দিন।
– একটি বায়ুরোধী ঢাকনা দিয়ে প্যানের উপরে ঢাকা দিন এবং এভাবে ৪৫ মিনিট রান্না অল্প আঁচে করুন। চাল পুরোপুরি সিদ্ধ হলে নামিয়ে ফেলুন।
– ডিম চিরে উপরে দিয়ে দিন। কোরমার সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন ।

৩। তেহারি রান্নার সহজ রেসিপি

উপকরণঃ
১। গরুর মাংস – ২ কেজি (ছোট ছোট টুকরা করা),
২। পোলাওর চাল – দেড় কেজি,
৩। রসুন বাটা – ২ টেবিল চামচ,
৪। আদা বাটা – ২ টেবিল চামচ,
৫। মরিচ গুঁড়া – ৩ টেবিল চামচ,
৬। মোটা করে পেঁয়াজ কাটা – ১ কাপ,
৭। গরম মশলা গুঁড়া (এলাচ, দারুচিনি, জায়ফল, জয়ত্রি, গোলমরিচ, লবঙ্গ, আস্ত ধনিয়া) তিন টেবিল চামচ,
৮। কাঁচামরিচ আস্ত – ১০-১২টি,
৯। টক দই – ৩০০ গ্রাম,
১০। সরিষার তেল পরিমাণমতো,
১১। লবণ স্বাদ অনুযায়ী,
১২। পানি পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালীঃ
– প্রথমে গরুর মাংস ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। একটি পাতিলে সরিষার তেল গরম করে তাতে একে একে টুকরা পেঁয়াজ, সব বাটা মশলা, গুঁড়া মশলা এবং স্বাদ অনুযায়ী লবণ দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিয়ে তাতে গরুর মাংস দিয়ে ঢেকে চুলায় রান্না করতে হবে প্রায় ১ ঘণ্টা (গরম মশলা পরে দিতে হবে)।

– এখন পোলাওর চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। চালের পানি ঝরে গেলে অন্য একটি পাতিলে শুধু অল্প সরিষার তেল ও লবণ দিয়ে পোলাওর চাল ভালো করে ভেজে নিয়ে তাতে পরিমাণমতো পানি ও স্বাদ অনুযায়ী লবণ এবং কাঁচামরিচ দিয়ে পোলাও রান্না করে নিন। এরপর গরুর মাংস অর্ধেক সেদ্ধ হয়ে এলে তাতে টক দই, কাঁচামরিচ ও গুঁড়া গরম মশলা দিয়ে আরও ২০ মিনিট গরুর মাংস রান্না করে নামিয়ে রাখুন।

– এখন রান্না করা পোলাও অর্ধেক তুলে নিয়ে বাকি পোলাওতে রান্না করা তেহরির মাংস দিয়ে উপরে বাকি পোলাও দিয়ে এপিঠ-ওপিঠ করে ভালো করে গরুর মাংসসহ মাখিয়ে চুলায় আরও ১০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে সার্ভিং ডিশে ঢেলে সাজিয়ে পরিবেশন করুন বিফ তেহারি।

 

৪। চিকেন বিরিয়ানি রান্নার রেসিপি

উপকরণঃ
১। মুরগির মাংসের – ৮ টি বড় টুকরো,
২। বাসমতি চাল – ১ কেজি,
৩। গোলমরিচ – ৫ টি,
৪। টকদই – ১ কাপ,
৫। আদা, রসুন বাটা – ১ টেবিল চামচ করে,
৬। এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ, হলুদ, ধনে, জিরা গুঁড়া – ১/২ চা চামচ করে,
৭। লংকা গুড়ো – ১ চা চামচ,
৮। পেঁয়াজ কুচি – ১ কাপ,
৯। টমেটো – ২ টি (টুকরো করা),
১০। গরম মশলা গুড়ো – ১ চা চামচ,
১১। বিরিয়ানি মশলা – ১ চা চামচ,
১২। গোলমরিচ গুড়ো – ১/২ চা চামচ,
১৩। মেথি – ১/২ চা চামচ,
১৪। লেবুর রস – ২ টেবিল চামচ,
১৫। কাঁচালংকা – ৫ টি (কুচি),
১৬। পুদিনা পাতা কুচি – ১ টেবিল,
১৭। ধনেপাতা কুচি – ২ টেবিল চামচ,
১৮। দুধ – ১/২ কাপ (জাফরান মিশানো),
১৯। লবণ – পরিমাণমতো,
২০। তেল – ১ কাপ,
২১। ঘি – ৩ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালীঃ
– চাল ১০ মিনিট ভিজিয়ে রেখে আস্ত গরম মশলা ও লবণ দিয়ে সিদ্ধ করুন ।
– মুরগির মাংস, টকদই, হলুদ, ধনে, জিরা গুড়ো, মরিচ গুড়ো, আদা, রসুন বাটা একত্রে মেখে ১ ঘণ্টা ম্যারিনেট করুন ।
– তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে টমেটো দিয়ে ভুনে নিন ।
– এবার ম্যারিনেট করা মাংস দিয়ে কষিয়ে নিন ।
– প্রায় সিদ্ধ হয়ে গেলে লেবুর রস, মেথি, গোলমরিচ গুড়ো, গরম মশলা গুড়ো, বিরিয়ানি মশলা দিয়ে আরো কিছুক্ষণ রান্না করুন ।
– জল শুকিয়ে তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে নিন ।
– এবার একটি বড় পাত্রে প্রথমে রান্না করা মাংস, তার উপর সিদ্ধ চাল, কাঁচালঙ্কা, পুদিনা পাতা, ধনেপাতা কুচি দিয়ে পুনরায় এভাবে আরেকটি লেয়ার করে তার উপর দুধ, ঘি ও লবণ ছিটিয়ে দিয়ে ভালো করে ঢেকে ৩০ মিনিট পর নামিয়ে নিয়ে পরিবেশন করুন ।

 

৫। সুস্বাদু ও স্বাস্থকর সবজি বিরিয়ানি

উপকরণঃ
১। নিজের পছন্দের সবজি ২ কাপ (আলু, গাজর, বরবটি, মটরশুঁটি, ফুলকপি ইত্যাদি),
২। পোলাওয়ের চাল বা বাসমতী চাল – ২ কাপ,
৩। পেঁয়াজ কুচি – ১ কাপ,
৪। আদা বাটা – ২ টেবিল চামচ,
৫। রসুন বাটা – ১ চা চামচ,
৬। পেঁয়াজ বাটা – ১ চা চামচ,
৭। এলাচি – ৩/৪ টা,
৮। জায়ফল – আধা চা চামচ,
৯। দারুচিনি – ২/৩ টা,
১০। লবঙ্গ – ৩/৪ টা,
১১। তেজপাতা – ২/৩ টা,
১২। তেল প্রয়োজনমতো,
১৩। লবণ স্বাদমতো,
১৪। দই – ১/২ কাপ,
১৫। কাঁচা মরিচ – ১০/১২ টি,
১৬। বেরেস্তা – আধা কাপ,
১৭। ঘি – ২/৩ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালীঃ
– সবজির সাথে সব মশলা জাতীয় উপকরণ এবং দই ভালো করে মিশিয়ে নিন। মাংস যেভাবে মেরিনেট করেন সেভাবে মেরিনেট করবেন কিন্তু সবজি যাতে ভেঙে না যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন।
– এরপর অল্প পানি দিয়ে আধা সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করে নিন। খুবই হালকা ঝোল রাখবেন এবং সবজি আধা সেদ্ধ করবেন, পুরো সেদ্ধ করবেন না এভাবে নামিয়ে রাখুন চুলা থেকে।
– একটি বড় পাতিলে তেল দিয়ে গরম করে এতে চাল ধুয়ে দিয়ে সামান্য লবণ দিয়ে নেড়ে চাল একটু ভেজে নিন। এরপর এতে পরিমাণমতো পানি দিয়ে দিন এবং চালের পানি শুকানো পর্যন্ত বেশী আঁচে রান্না করতে থাকুন।
– চাল পৌনে সেদ্ধ হয়ে এলে পাতিলের উপর থেকে খানিকটা চাল নামিয়ে তারপর রান্না করা সবজি দিয়ে তার উপরে নামিয়ে রাখা চাল দিয়ে ঢেকে নিন। এর উপরে দিন কাঁচামরিচ ও পেঁয়াজ বেরেস্তা।
– এরপর পাতিল সরাসরি চুলায় না দিয়ে নিচে একটি তাওয়া দিয়ে দিন। অর্থাৎ দমে বসিয়ে ঢাকনা দিয়ে ভালো করে ঢেকে রান্না করতে থাকুন। পুরোপুরি চাল সেদ্ধ হয়ে এলে উপরে ২/৩ চামচ ঘি ছড়িয়ে নামিয়ে ঢেকে রাখুন।
– এরপর ২ মিনিট পর গরম গরম পরিবেশন করুন সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর মজাদার ‘সবজি বিরিয়ানি’।

(Visited 251 times, 1 visits today)
Share :
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Be the First to Comment!

Notify of
avatar