তরমুজের দানা পানিতে ফুটিয়ে মাত্র ২দিন খান আর পরিবর্তন দেখে নিজেই বিস্মিত হবেন

তরমুজের দানার গুণাগুণ
তরমুজের দানার গুণাগুণ

তরমুজের মধ্যে ৯০ ভাগই জল। তার মানে এই নয়, দাম দিয়ে তরমুজ কিনে পুরো টাকাটাই জলে গেল। হাইড্রেশানের সেরা উত্‍‌স হওয়ায়, আমাদের শরীরের কোষকে হাইড্রেটস করে। pH-এর ভারসাম্য রক্ষা করে। citrulline থাকায় ইরেক্টাইল ডিসফাংশনের সমস্যাতেও তরমুজ দারুণ কাজ দেয়। যে কারণে একে প্রাকৃতিক ভায়াগ্রা বলে। তরমুজের মতো এর দানাও ফেলনা নয়।

তরমুজের দানা জলে ফুটিয়ে মাত্র ২দিন খান, রাতারাতি পরিবর্তনে নিজেই বিস্মিত হবেন। ফ্যাটি অ্যাসিড, বেসিক প্রোটিন ছাড়াও রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ ও আয়রনের মতো মিনারেলস। আবার ভিটামিন বি-এরও প্রায় পুরোটাই প্রচুর পরিমাণে রয়েছে।

থিয়ামিন, নিয়াসিন এবং ফলিক অ্যাসিড। ক্যালরি রয়েছে মাত্র ৬০০ গ্রাম। মূত্রনালির রোগে তরমুজের দানা অত্যন্ত ভালো কাজ দেয়। কিডনির পাথরকে প্রসাবের সঙ্গে বাইরে বের করে দেয়।

যে ভাবে খাবেনঃ
– তরমুজের দানাগুলো এক জায়গায় জড়ো করে, ভালো করে ধুয়ে দু-লিটার জলে ১৫ মিনিট ধরে ফুটিয়ে চায়ের মতো তৈরি করে নিন। পরপর দু-দিন খেয়ে, তৃতীয় দিন বিশ্রাম দিন। আবার দু-দিন মিশ্রণটি পান করুন। এ ভাবে কয়েক সপ্তাহ খেলেই পরিবর্তন লক্ষ্য করবেন।

তরমুজের দানার আরও কিছু গুণাগুণঃ

হার্টের স্বাস্থ্য ভালো রাখেঃ
তরমুজের দানায় রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম। এই ম্যাগনেসিয়াম হার্টকে সঠিক ভাবে চালনা করে। রক্তচাপকেও নিয়ন্ত্রণ করে। পাশাপাশি বিপাকেও সাহায্য করে। হার্টের অসুখ ও হাইপার টেনশনের হাত থেকে মুক্তি পেতে চাইলে, তরমুজের দানার তুলনা নেই।

অকাল বার্ধক্য দূর করেঃ
তরমুজের দানায় থাকা অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট অকাল বার্ধক্য দূর করে। ত্বককে তাজা রাখে। ব্রণর সমস্যা দূর করে। যাঁদের শুষ্ক ত্বক, তাঁরাও এটি ময়শ্চারাইজিং ক্রিমের মতো ব্যবহার করতে পারেন।

চুলের গোড়া মজবুত করেঃ
– তরমুজের দানায় উচ্চমাত্রায় প্রোটিন ও অ্যামাইনো অ্যাসিড রয়েছে। যা চুলের গোড়াকে মজবুত করে তোলে। জেল্লা আনে।

ভিটামিন B6-এর ঘাটতি পূরণ করেঃ
– B6 হল ভিটামিন বি-এর মধ্যে সবথেকে জটিল। যার কাজ হল কার্বোহাইড্রেটকে শক্তিতে রূপান্তর করা। এর অভাবে বেরিবেরি অসুখ হয়। তরমুজের দানা এই ঘাটতি পূরণ করে।

প্রয়োজনীয় অ্যামাইনো অ্যাসিডের জোগান দেয়ঃ
– শরীরের জন্য অ্যামাইনো অ্যাসিড একটি জরুরি উপাদান। আর্জিনিন এবং লাইসিনের মতো অ্যামাইনো অ্যাসিডের অন্যতম উত্‍‌স হল তরমুজের দানা। লাইসিন ক্যালসিয়ামকে শুষে নিয়ে হাড়ের গঠন মজবুত করে। টিস্যুকে ঠিক রাখে।

স্মৃতিবিভ্রমেঃ
– কিছুই মনে রাখতে পারছেন না, আজকাল সবই ভুলে যান। নিয়মিত তরমুজের দানা খাদ্যতালিকায় রেখে দিন। কয়েক দিনের মধ্যে ফারাক নিজেই বুঝবেন। স্মৃতিশক্তি চনমনে হয়ে উঠবে।

পুরুষের ফার্টিলিটির ক্ষমতা বাড়ায়ঃ
– তরমুজের দানায় রয়েছে লাইকোপেন। যা পুরুষের উর্বরতা শক্তি বাড়াতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান।

তথ্য এবং ছবি : গুগল, প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ

(Visited 408 times, 1 visits today)
Share :
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Be the First to Comment!

Notify of
avatar