কাঁচা আমের ৭ রকম আচার রেসিপি, দেখে নিন

কাঁচা আমের আচা
কাঁচা আমের ৭ রকম আচার রেসিপি

আচার বানিয়ে সংরক্ষণ করার জন্য কাঁচা আমের তুলনা হয় না। এক কাঁচা আম দিয়েই বানানো যায় হরেক রকম আচার। বানিয়ে ফেলুন কাঁচা আমের কয়েকটি আচার, যা খেতে পারবেন সারাটি বছর। চলুন দেখে নেওয়া যাক কাঁচা আম দিয়ে বিভিন্ন ধরণের আচার তৈরির রেসিপি ।

১। টক-ঝাল-মিষ্টি আমের আচার

উপকরণঃ

১। কাঁচা আম ১ কেজি,
২। সিরকা আধা কাপ,
৩। সরিষার তেল এক কাপ,
৪। রসুনবাটা দুই চা-চামচ,
৫। আদাবাটা দুই চা-চামচ,
৬। হলুদ গুড়া দুই চা-চামচ,
৭। চিনি তিন টেবিল-চামচ,
৮। লবণ পরিমাণমতো ।

মসলার জন্যঃ

১। মেথি গুঁড়া এক চা-চামচ,
২। জিরা গুঁড়া দুই চা-চামচ,
৩। মৌরি গুঁড়া এক চা-চামচ,
৪। রাঁধুনি গুঁড়া দুই চা-চামচ,
৫। সরষেবাটা তিন টেবিল-চামচ,
৬। শুকনা মরিচ গুঁড়া দুই টেবিল-চামচ,
৭। কালো জিরা গুঁড়া এক চা-চামচ ।

প্রণালীঃ
– খোসাসহ কাঁচা আম টুকরো করে লবণ দিয়ে মেখে একরাত রেখে দিতে হবে। পরের দিন ধুয়ে আদা, হলুদ, রসুন মাখিয়ে কিছুক্ষণ রোদে রাখুন।
– এরপর সসপ্যানে আধা কাপ তেল দিয়ে আমগুলো নাড়া-চাড়া করতে থাকুন, গলে গেলে নামিয়ে ফেলুন। অন্য একটি সসপ্যানে বাকি তেল দিয়ে চিনিটা গলিয়ে ফেলুন।
– কম আঁচে চিনি গলে গেলে সব মসলা দিয়ে (মৌরি,মেথি গুঁড়া ছাড়া) আম কষিয়ে নিতে হবে। আম গলে গেলে মৌরি গুঁড়া, মেথি গুঁড়া দিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে।

২। আম-রসুনের আচার

উপকরণঃ

১। খোসা ছাড়া কাঁচা আমের টুকরা দুই কাপ,
২। সরিষার তেল এক কাপ,
৩। রসুনছেঁচা এক কাপ,
৪। মেথি এক টেবিল-চামচ,
৫। মৌরি এক টেবিল-চামচ,
৬। জিরা এক টেবিল-চামচ,
৭। কালো জিরা দুই চা-চামচ,
৮। সিরকা আধা কাপ,
৯। হলুদগুঁড়া দুই চা-চামচ,
১০। শুকনা মরিচ ১০-১২টি,
১১। চিনি দুই টেবিল-চামচ,
১২। লবণ পরিমাণমতো ।

প্রণালীঃ
– আমের টুকরো গুলোতে লবণ মাখিয়ে একরাত রেখে দিতে হবে। পরের দিন ধুয়ে কয়েক ঘণ্টা রোদে দিতে হবে। রেসিপির সব মসলা মিহি করে বেটে নিতে হবে।
– এরপর চুলায় সসপ্যানে তেল দিয়ে বসাতে হবে। তেল গরম হলে রসুন দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়িয়ে, তারপর বাটা মসলা দিয়ে নাড়তে হবে। তারপর আম দিয়ে নাড়িয়ে নিতে হবে।
– কিছুক্ষণ রান্না করার পর আম নরম হলে, চিনি দিয়ে নাড়িয়ে নামাতে হবে। এরপর আচার ঠাণ্ডা হলে বোতলে ভরে, বোতলের মুখ পর্যন্ত তেল দিয়ে ঢাকতে হবে। এরপর কয়েকদিন রোদে দিতে হবে।

৩। কাঁচা আমের কাশ্মীরী আচার

উপকরণঃ

১। কাঁচা আম বড় সাইজের ১ কেজি,
২। চিনি আধা কেজি বা পরিমাণ মতো,
৩। সিরকা ১ কাপ,
৪। শুকনা মরিচ গোল গোল করে কাটা ১ টেবিল চামচ,
৫। আদা ফুল করে কাটা ১ টেবিল চামচ,
৬। পানি পরিমাণ মতো,
৭। লবণ সামান্য ।

প্রণালীঃ
– প্রথমে আম ভালো করে ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে মাঝারি সাইজের লম্বা লম্বা করে কেটে সামান্য লবণ মাখিয়ে একদিন রোদে দিয়ে ফুটন্ত পানিতে ২ মিনিট ফুটিয়ে নিন।
– তারপর ঝাঁঝরিতে দিয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। একটি পাতিলে পরিমাণ মতো পানি ও চিনি দিয়ে সিরা করে তাতে টুকরা করা আম দিয়ে নিবু নিবু আগুনে রেখে জ্বাল দিতে থাকুন।
– আমের সিরা যখন ঘন হয়ে আসবে তখন তাতে একে একে সিরকা, বাটা মরিচ, গোল করে কাটা লাল মরিচ এবং টুকরা করা আদা দিয়ে প্রায় ৩/৪ চুলার নিবু নিবু জ্বালে রেখে দিন।
– প্রায় ঘন হয়ে এলে সেটি ঠাণ্ডা করে বোয়ামে ভরে ফ্রিজে রেখে খাওয়া যাবে প্রায় এক বছর।

৪। আম-পেঁয়াজের ঝুরি আচার

উপকরণঃ

১। কাঁচা আমের ঝুরি এক কাপ,
২। পেঁয়াজ কুচি এক কাপ,
৩। জিরাগুঁড়া দুই চা-চামচ,
৪। কালো জিরাগুঁড়া আধা চা-চামচ,
৫। সরষেগুঁড়া এক টেবিল-চামচ,
৬। মরিচগুঁড়া দুই চা-চামচ,
৭। সরিষার তেল আধা কাপ,
৮। লবণ পরিমাণ মতো ।

প্রণালীঃ
– আমের ঝুরি এবং পেঁয়াজের কুচি আলাদাভাবে একদিন রোদে ভালোভাবে শুঁকিয়ে নিতে হবে। তারপরের দিন বাকি সব উপকরণগুলি দিয়ে, ভালোভাবে হাত দিয়ে মাখিয়ে বোতলে ভরে কয়েক দিন রোদে দিতে হবে।

৫। আমের নোনতা আচার

উপকরণঃ

১। আমের টুকরো ৪ কাপ,
২। কালোজিরার গুঁড়া ১ চা-চামচ,
৩। শুকনা মরিচ ৩টা,
৪। মৌরি গুঁড়া আধা চা-চামচ,
৫। হলুদ গুঁড়া ১ চা-চামচ,
৬। পাঁচফোড়ন ১ চা- চামচ,
৭। সরষের তেল ২ কাপ,
৮। লবণ ২ চামচ ।

প্রণালীঃ
– আমের খোসা ফেলে লম্বা টুকরো করে লবণ পানিতে ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। এরপর পানি ঝরিয়ে এতে হলুদ ও প্রয়োজনমতো লবণ দিয়ে কড়া রোদে কয়েক ঘণ্টা রেখে মৌরি গুঁড়া ও কালোজিরার গুঁড়া দিয়ে আবার রোদে দিন।
– শুকনা নরম আম বোতলে ঢুকিয়ে নিন। গরম তেলে পাঁচফোড়ন ভেজে তেল ও পাঁচফোড়ন আমের বোতলে ঢেলে দিয়ে কয়েক দিন বোতলের মুখে পাতলা কাপড়ে বেঁধে রোদে দিন।

৬। খোসাসহ আমের আচার

উপকরণঃ

১। আম ১০টা,
২। সরষে বাটা ২ চামচ,
৩। পাঁচফোড়ন বাটা ১ চামচ,
৪। সিরকা আধা কাপ,
৫। হলুদ গুঁড়া ১ চা-চামচ,
৬। মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ,
৭। চিনি ১ কাপ,
৮। তেজপাতা ২টা,
৯। শুকনা মরিচ ৩টা,
১০। সরষের তেল ১ কাপ,
১১। লবণ স্বাদমতো ।

প্রণালীঃ
– আম খোসাসহ টুকরো করে হলুদ ও লবণ মাখিয়ে ৮-১০ ঘণ্টা রোদে দিন। এবার হলুদ, মরিচ, সরষে, পাঁচফোড়ন ও অর্ধেক সিরকা আমের সঙ্গে মিশিয়ে আবার রোদে দিন।
– শুকিয়ে এলে বাকি সিরকা, চিনি, তেজপাতা ও শুকনা মরিচ দিয়ে বোতলে ঢুকিয়ে রোদে দিন। তেল ভালোভাবে গরম করে ঠান্ডা হলে আচারের বোতলে ঢেলে কয়েক সপ্তাহ রোদে দিন।

৭। আমের মোরব্বা

উপকরণঃ

১। আম ১০টা,
২। চিনি ২ কাপ,
৩। পানি ১ কাপ,
৪। এলাচ ৩টা,
৫। দারচিনি ২ টুকরো,
৬। তেজপাতা ২টা,
৭। চুন ১ চা-চামচ,
৮। লবণ আধা চা-চামচ ।

প্রণালীঃ
– আমের খোসা ফেলে দুই টুকরো করে নিন। এবার টুথপিক দিয়ে আমের টুকরো ভালোভাবে ছিদ্র করে নিন। চুনের পানিতে আম ৭-৮ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন।
– আম তুলে পরিষ্কার পানিতে কয়েকবার ধুয়ে নিন। এবার চিনির সিরায় সব উপকরণ দিয়ে ফুটে উঠলে আম ছেড়ে দিন। অল্প আঁচে রাখুন।
– আম নরম হলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে বোতলে ঢুকিয়ে রাখুন ।

 

(Visited 904 times, 1 visits today)
Share :
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Be the First to Comment!

Notify of
avatar